• সমগ্র বাংলা

রাজশাহীতে দেড় বছর পর আটক বিকাশ প্রতারক

  • সমগ্র বাংলা
  • ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ১৭:২৬:৪৫

ছবিঃ সংগৃহীত

 

নিউজ ডেস্কঃ দেড় বছর আগে বিকাশ প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন রাজশাহী কোর্টের আইনজীবী সালাউদ্দীন বিশ্বাস। ২০১৮ সালের ১০ অক্টোবর ভুক্তভোগীর শিকার হওয়ার পর মামলা দায়ের করেছিলেন তিনি। সেই মামলায় গত মঙ্গলবার রাতে মো. সেলিম মিয়া (২৬) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সেলিমকে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি থানার অন্তর্গত পশ্চিম মৌকুড়ি এলাকায় নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সেলিমের বাবার নাম মো. ইদ্রিস মিয়া।

বিকাশ প্রতারণায় সেলিমকে গ্রেপ্তারের বিয়সটি নিশ্চিত করেছেন রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাজহারুল ইসলাম। তিনি জানান, আইনজীবী সালাউদ্দীন বিশ্বাসের কাছে তার অ্যাকাউন্টের তথ্য ভুলের কারণে বন্ধ হয়ে যাবে বলে কৌশলে অন্যান্য তথ্যসহ পিন নম্বর জেনে নিয়ে প্রতারণামূলকভাবে ৩২০৬৩.২৫ টাকা হাতিয়ে নেন সেলিম। পরবর্তীতে সালাউদ্দীন তা বুঝতে পারেন ও সেলিমের কাছে অর্থ ফেরত চান। কিন্তু তিনি অস্বীকার করায় সেলিমের বিরুদ্ধে মামলা করেন সালাউদ্দীন।

পরে মামলার পরিপ্রেক্ষিতে রাজপাড়া থানা পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে সেলিমের অবস্থান ও সন্ধান চিহ্নিত করে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি থানা পুলিশের সহায়তা চায়। পরে পুলিশের দুটি ইউনিট এক হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে সেলিমকে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে। গতকাল বুধবার দুপুর ২টায় সেলিমকে রাজশাহীতে আনা হয়।

এ বিষয়ে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘আসামি সেলিম একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সদস্য বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে। তার সঙ্গে অন্যান্য মামলার যোগসূত্র, অনুসন্ধান ও যাচাই চলছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, রাজশাহীর বিভিন্ন ডিজিটাল প্রতারণার সঙ্গে রাজবাড়ী জেলার প্রতারকচক্রের যোগসূত্র রয়েছে।

কুদ্দুস আরও জানান, আজ বেলা ১১টার দিকে সেলিমকে প্রতারণা অভিযোগে আদালতে তোলা হয়েছে। আগামী দিনগুলোতেও এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য ( ০)





  • company_logo