১৮, ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, সোমবার | | ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪০

ভিসা ছাড়াই যে ৪১ দেশে যেতে পারবেন বাংলাদেশিরা

আপডেট: জানুয়ারি ৩১, ২০১৯

ভিসা ছাড়াই যে ৪১ দেশে যেতে পারবেন বাংলাদেশিরা

বাংলাদেশের নাগরিকরা ভিসা ছাড়াই ৪১টি দেশে যেতে পারেন। যেখানে আগে যাওয়া যেত ৩৮ দেশে। অর্থাৎ এই দেশগুলোতে ভ্রমণ করতে কোনো ধরণের ভিসা লাগে না, কেবল পাসপোর্ট থাকলেই চলবে।

বিশ্বের ১০৪টি দেশের ওপর জরিপ চালিয়ে একটি মূল্যায়ন সূচক তৈরি করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা ‘দ্যা হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স’। আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থার (আইএটিএ) ভ্রমণ তথ্যভাণ্ডারের সহযোগিতা নিয়ে প্রতিবছরের মতো এ সূচক তৈরি করেছে তারা। এতে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

দ্য হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স বলছে বাংলাদেশি পাসপোর্ট থাকলে বিশ্বের ৪১টি দেশে ভিসা ছাড়াই প্রবেশ করা যাবে। তাদের তালিকা নিচে দেয়া হলো।

এশিয়ার মধ্যে রয়েছে-
ভুটান, ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা ও পূর্ব তিমুর।

আফ্রিকার মধ্যে রয়েছে-
বেনিন, কেপ ভার্দ, কমোরো দ্বীপপুঞ্জ, জিবুতি, গাম্বিয়া, গিনি বিসাউ, কেনিয়া, লেসোথো, মাদাগাস্কার, মৌরিতানিয়া, মোজাম্বিক, রুয়ান্ডা, সিসিলি, সোমালিয়া, টোগো ও উগান্ডা।

আমেরিকার মধ্যে রয়েছে-
বলিভিয়া

ওশেনিয়া অঞ্চলের মধ্যে রয়েছে-
কুক আইল্যান্ডস, ফিজি, মাইক্রোনেশিয়া, নিউই, সামাউ, ত্রিভালু ও ভানুয়াতু।

ক্যারিবীয় অঞ্চলের মধ্যে রয়েছে-
বাহামা, বার্বাডোজ, ব্রিটিশ ভার্জিনিয়া আইল্যান্ডস, ডোমিনিকা, গ্রেনাডা, হাইতি, জামাইকা, মন্টসেরাত, সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস, সেন্ট ভিনসেন্ট ও ত্রিনিদাদ ও টোব্যাগো।

বুধবার (০৯ জানুয়ারি) দ্য হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্সের প্রকাশিত ওই সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ৯৭তম। সূচকে ভারতের অবস্থান ৭৯তম। আর পাকিস্তান রয়েছে ১০২-এ।

আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থার (আইএটিএ) ভ্রমণ তথ্যভাণ্ডারের সহযোগিতা নিয়ে প্রতিবছর হ্যানলি অ্যান্ড পার্টনার্স এ সূচক তৈরি করে। দেশভিত্তিক নম্বর (স্কোর) দেওয়া রয়েছে সূচকে। এ নম্বরটি হচ্ছে একটি দেশ আগে থেকে ভিসা ছাড়া বা আগমনী ভিসা (ভিসা অন অ্যারাইভাল) নিয়ে বিশ্বের কতটি দেশে যেতে পারেন তার ওপর নির্ভর করে।

১৯০ দেশে ভিসামুক্ত প্রবেশাধিকার সুবিধা নিয়ে তালিকার প্রথমে রয়েছে জাপানি পাসপোর্ট। পরের স্থানে রয়েছে যৌথভাবে সিঙ্গাপুর ও দক্ষিণ কোরিয়ান পাসপোর্ট (ভিসামুক্ত প্রবেশাধিকার ১৮৯ দেশ)। তিন মাস পরপর প্রকাশিত সূচকে টানা দ্বিতীয়বারের মতো প্রথম স্থানটি দখল করে আছে একটি এশিয়ান দেশ। ২০১৭ সালে চীনের অবস্থান ৮৫তম থাকলেও এবছর তারা উঠে এসেছে ৬৯তম স্থানে। আর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অবস্থান করছে ষষ্ঠ স্থানে।

সূচকে সেরা পাঁচ- জাপান (১৯০ দেশ), সিঙ্গাপুর ও দক্ষিণ কোরিয়া (১৮৯ দেশ), ফ্রান্স ও জার্মানি (১৮৮ দেশ), ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ইতালি ও সুইডেন (১৮৭ দেশ) এবং লুক্সেমবার্গ ও স্পেন (১৮৬ দেশ)।
সূচকে সবচেয়ে দুর্বল পাঁচ- আফগানিস্তান ও ইরাক (৩০ দেশ), সোমালিয়া ও সিরিয়া (৩২ দেশ), পাকিস্তান (৩৩ দেশ), ইয়েমেন (৩৭ দেশ) এবং ইরিত্রিয়া (৩৮ দেশ)।